freelancing-dos-and-don'ts

আস-সালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ, আশা করি সকলেই ভালো আছেন। অনেকদিন পর আবারো লিখতে বসলাম, অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে বর্তমান সময়ের হট টপিক তাই এবারে ফ্রিল্যান্সিং করতে গিয়ে আমাদের কি করা উচিত আর কি করা উচিত নয় এই বিষয় নিয়েই লিখার চেষ্টা করব। চলুন তবে সরাসরি মূল আলোচনায় চলে যাই।

করণীয়ঃ

১। ক্লায়েন্টের কাজ সততা ও নিষ্ঠার সাথে সম্পন্ন করা এবং যথাসময়ে কাজ জমা দেয়া সেইসাথে তাঁর গুরুত্বপূর্ণ তথ্যসমূহ অন্যের নিকট গোপন রাখা।

২। কাজ শুরুর পূর্বে প্রজেক্ট সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া এবং নিয়মিত ক্লায়েন্ট এর সাথে যোগাযোগ রাখা।

৩। হুজুগের উপর নতুন কিছু না শিখে নিজের পছন্দমত শিখুন এবং তাঁর ধারাবাহিকতা বজায় রাখুন অথবা যে কাজটি করছেন তার আরো গভীরে যাওয়ার চেষ্টা করা।

৪। শখের বসে ফ্রিল্যান্সিং বলে কিছু নেই, কাজের ক্ষেত্রে নূন্যতম প্রফেশনালিজম থাকা উচিত।

৫। নিজেকে নতুন নতুন বিষয়ের/কাজের সাথে পরিচিত রাখা তবে এর মানে এই নয় যে, আপনাকে সেসকল কাজ জানতেই হবে বরং সেই কাজটি কি বা কিভাবে করা হয়, এর ভালো দিক এবং খারাপ দিক কি তা জেনে রাখা।

৬। কাজের পাশাপাশি নিজের স্বাস্থ্যের প্রতিও যথেষ্ট যত্নবান হওয়া এবং কমিউনিটিতে কিছু সময় ব্যয় করা।

৭। যে বিষয়ে আপনি অভিজ্ঞ সে বিষয়ে অন্যকে সহায়তা করুন এবং যা আপনার জানা নেই প্রয়োজনে তা জেনে নিতে দ্বিধাবোধ না করা।

৮। আপনি দেশের একজন সন্মানিত মানুষ। আর তা আপনার কথা-বার্তা, আচার আচরনে প্রকাশিত হবে। আপনি একজন ফ্রিল্যান্সার হলেও আপনি আসলে একা নন, দেশের প্রতিটি ফ্রিল্যান্সার ভাই-ভাই এবং সকলে মিলে একটি পরিবার তাই এমন কিছু করা হতে বিরত থাকা যাতে আপনাকে দেখে এই পেশার প্রতি মানুষের সন্মান হ্রাস না পায়।

 

বর্জনীয়ঃ

১। ক্লায়েন্ট এর সাথে কোনপ্রকার লুকোচুরি করা এবং কোন বিষয় জানা না থাকলে/করতে না চাইলে/ব্যস্ত থাকলে সরাসরিভাবে না বলতে না পারা।

২। ভাসা-ভাসা জ্ঞান নিয়ে ইচ্ছেমত/গণহারে বিড করা।

৩। ভুল তথ্য দিয়ে মার্কেটপ্লেসে একাউন্ট তৈরি করা।

৪। পরবর্তীতে কাজ পাবার আশায় প্রয়োজনের চাইতেও কম রেটে কাজ করা।

৫। কোন বিষয়ে না জেনেই মন্তব্য করা।

৬। ক্লায়েন্ট ও কমিউনিটিকে ধোঁকা দেয়া।

 

অনুগ্রহপূর্বক মনে রাখবেন, টাকার জন্য জীবন নয় বরং জীবনের জন্য টাকার প্রয়োজন। তাই টাকার পেছনে ছুটতে গিয়ে নিজের স্বত্বা, স্বাস্থ্য, সময় অকাতরে যাতে নষ্ট না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখা জরুরী। সেইসাথে নিয়মিত প্রার্থনা ও আল্লাহ্‌ এর শোকর করা আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য।

চেষ্টা করেছি নিজের অভিজ্ঞতাগুলোকে এই পোস্টে তুলে ধরতে, তাই ভুল-ত্রুটি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আপনিও কমেন্টে নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারেন।

Archive